ব্লাড প্রেশার কমানোর ঘরোয়া উপায়

ব্লাড প্রেশার কমানোর ঘরোয়া উপায়

ব্লাড প্রেশার কি?

ব্লাড প্রেশার হল এমন শক্তি বা চাপের পরিমাপ যা আমাদের হার্টের মাধ্যমে  শরীরের চারপাশে রক্ত ​​পাম্প করে থাকে। ধমনীর দেয়ালে রক্তের চাপকে রক্তচাপ বলে। হার্ট থেকে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ও টিস্যুতে রক্তের সঠিক প্রবাহের জন্য স্বাভাবিক চাপ গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের প্রতিটি হৃদস্পন্দন শরীরের বাকি অংশে রক্ত ​​​​প্রবাহিত করে থাকে। রক্তচাপের দুটি পরিমাপ করা হয়ে থাকে ; সিস্টোলিক (হৃদপিণ্ডের স্পন্দনের সময় পরিমাপ করা হয়, যখন রক্তচাপ সর্বোচ্চ থাকে) এবং ডায়াস্টোলিক (হার্টের স্পন্দনের মধ্যে পরিমাপ করা হয়, যখন রক্তচাপ সর্বনিম্ন থাকে)।

একটি স্বাভাবিক রক্তচাপের রেঞ্জ হচ্ছে- সিস্টোলিক চাপের ক্ষেত্রে 90 mm Hg এর উপরে এবং 120 mm Hg এর নিচে এবং ডায়াস্টোলিক চাপের ক্ষেত্রে 60 mm Hg এবং 80 mm Hg এর কম হতে হবে।

ব্লাড প্রেশার কমানোর ঘরোয়া উপায়

 

ব্লাড প্রেশার কমানোর ঘরোয়া উপায়-

রক্তচাপ কমানোর ঘরোয়া কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করে সবাই উপকৃত হতে পারে। এমনকি যদি আপনার রক্তচাপ স্বাভাবিক হয়ে থাকে এবং যদি আপনি এখনও সুস্থ থাকেন তাহলে আপনিও এই পদক্ষেপগুলি গ্রহন করে নিতে পারেন। নিম্নলিখিত জীবনধারা পরিবর্তনগুলি আপনার রক্তচাপকে উল্লেখযোগ্যভাবে কমাতে সাহায্য করবেঃ

১। হাঁটা এবং ব্যায়ামঃ  রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট সময়ে হাঁটার অভ্যাস করুন, এবং প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন।

২। স্বাস্থ্যকর ওজনঃ উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে অবশ্যই বাড়তি ওজন কমাতে হবে। অতিরিক্ত ওজন হৃদপিন্ডের উপর চাপ ফেলে, যার জন্য রক্তচাপ বৃদ্ধি পায়।

৩। ধূমপান ত্যাগ করাঃ রক্তচাপ কমানোর জন্য ধূমপান ত্যাগ অত্যন্ত জরুরি। উচ্চ রক্তচাপ হওয়ার জন্য ধূমপান একটি মূল কারণ।

৪। লবণ কম খাওয়াঃ অনেকের অভ্যাস থাকে ভাত বা বিভিন্ন খাবারের সাথে কাঁচা লবণ খাওয়া। এই কাঁচা লবন উচ্চ রক্তচাপের কারন ।

৫। অ্যালকোহল পানঃ যাদের অ্যালকোহল পানের অভ্যাস আছে তারা পরিমিত পরিমানে অ্যালকোহল খেতে পারেন। তবে অ্যালকোহল না খাওয়াই সবচেয়ে উত্তম।

৬। ফল এবং সবজিঃ খাওয়ার তালিকায় ফল এবং সবজির পরিমান বাড়িয়ে দিন। পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার বেশি করে খান

৭। মানসিক চাপঃ  শারীরিকভাবে আরও সক্রিয় হয়ে উঠুন। মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রন করার চেষ্টা করুন।

৮।চর্বি জাতীয় খাবার খাওয়া ছেড়ে দিনঃ  চর্বি জাতীয় খাবার যেমন-খাসির মাংস, মাখন, ঘি ইত্যাদি চর্বি জাতীয় জিনিস উচ্চ রক্তচাপ বৃদ্ধির অন্যতম কারণ। তাই উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে এইসব চর্বিজাতীয় খাবার ছেড়ে দিন। এর পরিবর্তে সূর্যমুখী তেল, সয়াবিন তেল এগুলো খান।

চিকিৎসা ব্যবস্থার বাইরে রক্তচাপ কমানোর কোনো দ্রুত এবং নিরাপদ উপায় নেই। লাইফস্টাইল পরিবর্তন করে অর্থাৎ ব্যায়াম, ডায়েট এবং স্ট্রেস কমানোর কৌশলগুলিকে মেনে চললে সময়ের সাথে সাথে স্বাভাবিকভাবেই রক্তচাপ কমতে পারে।

ভালো মানের কয়েকটি ব্লাড প্রেশার মেশিনের দাম ও ছবি দেয়া হলোঃ

 

Contact Us: –(Techno Health)
Call 24/7 ( +880 1842-756014 )
Facebook | Instagram | YouTube

Office Address :
প্রধান অফিস : হাউজ ৪২ , লেক ড্রাইভ রোড , সেক্টর ৭ , উত্তরা , ঢাকা ।
শাখা অফিসঃ শপ নং ৭ এবং ৮ হোল্ডি নং ২১/এ , বাগদাদ সার্জিক্যাল মার্কেট , তোপখানা রোড , ঢাকা ।
Google Map : Click Here