গরমে তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

গরমে তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

গরমে তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

গরমে ত্বকের অতিরিক্ত যত্ন নিতে হয়। কেননা, গরমে ত্বকে ময়লা জমে গিয়ে ব্রণ হতে পারে। এজন্য গরমে একটু পর পর মুখ ধুয়ে নিতে  হয়। তাহলে ত্বকের ময়লা এবং তেল জমতে পারবে না। যাদের ত্বকের ধরণ তৈলাক্ত তাদের সহজেই  মুখে তেল জমে অস্বস্তি হয়। তবে একটা নির্দিষ্ট পরিমান তেল আমাদের ত্বকের জন্য খুবই দরকারী যা আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখে, ত্বককে স্বাস্থ্যবান করে। ত্বক যদি অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যায় সেক্ষেত্রে অনেক সমস্যা দেখা দেয় তাই খুব বেশী তৈলাক্ত বা খুব বেশি শুষ্ক ত্বক কোনটাই ভালো নয়।

তৈলাক্ত ত্বকের অনেক সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে। তৈলাক্ত ত্বকে তেল বলিরেখা পড়া ও মুখের রঙ ফ্যাকাশে হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে। তবে তৈলাক্ত ত্বকে অনেক সমস্যাও আছে। তৈলাক্ত ত্বকে ধুলোবালি জমে বেশী। ধুলো ময়লা জমে ত্বকের লোমকূপ বন্ধ হয়ে যায় ফলে ব্রনের সমস্যায় ভুগতে হয়। এছাড়াও এ ধরনের ত্বকে লোমকূপ বড় হয়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। তবে সমস্যা যেমন আছে এর সমাধানও আছে। চলুন এবার জেনে নেই তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন আপনি কিভাবে নিবেন-

তৈলাক্ত ত্বকের যত্নঃ

  • তৈলাক্ত ত্বকে তেল বেশী থাকায় ত্বকে ময়লা ধুলোবালি বেশী আটকে থাকে তাই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ত্বক সবসময় পরিষ্কার রাখতে হবে। বিশেষ করে গরমের সময় বারবার মুখে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।
  • শসা তৈলাক্ত ত্বকের জন্য অনেক উপকারী। ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করতে চাইলে শসার রস দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে পারেন। তবে স্ক্রাব হিসেবে চালের গুঁড়া ব্যবহার করতে পারেন। চালের গুড়া তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ভালো স্ক্রাবের কাজ করে।
  • লেবু, মধু ও কলা দিয়ে ফেসপ্যাক বানিয়ে মুখে লাগাতে পারেন। এতে করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে। মধু এন্টি অক্সিডেন্টের কাজ করে তাই ত্বকে ব্রনের সমস্যা থেকে রক্ষা পাবে।
  • নরমাল পানি দিয়ে মুখ ধোয়ার সময় পানিতে গোলাপ জল মিশিয়ে নিতে পারেন এতে করে ত্বকের তৈলাক্ত ভাব কমবে।
  • গোসলের সময় গোসলের পানিতে নিমপাতা দিয়ে নিতে পারেন অথবা নিমের সাবান ব্যবহার করতে পারেন। নিম শরীরের ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমন থেকে রক্ষা করে।

গরমে তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

  • বেসন, টকদই, কমলার খোসা বাটা দিয়ে প্যাক বানিয়ে ল্গাতে পারেন এতে করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে।
  • শুধু মুলতানি মাটির সঙ্গে গোলাপজল মিশিয়ে পেস্ট করে একই পদ্ধতিতে ব্যবহার করলেও দূর হবে তৈলাক্তভাব।
  • অ্যালোভেরা জেল দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করলে তা তেলতেলেভাব দূর করতে অনেক কার্যকরী।
  • ডিমের সাদা অংশ মুখে লাগিয়ে এর ওপর টিস্যু পেপার দিয়ে ১০ মিনিট রাখতে হবে। শুকানো হয়ে গেলে ত্বক পরিষ্কার করে নিলেই ত্বকের লোমকূপ বড় দেখানোর সমস্যা দূর হবে।

এসব প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে ত্বকের পরিচর্যা করলে ত্বক সুন্দর থাকে,ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হয়। আমাদের উচিত আমাদের ত্বকের ধরন বুঝে ত্বকের সঠিক যত্ন নেয়া।